মদ্যপান ও গাড়িচালনা

মদ্যপানের দায়িত্বশীল নির্দেশিকা

Untitled-1

এটা যেকোন ব্যক্তির ক্ষেত্রে ঘটতে পারে। আপনি কোন পার্টিতে গেলেন, বন্ধুদের সঙ্গে দেখা হল, হাসি-ঠাট্টা আর তারপরে ফুর্তির হুল্লোড়। এরপর ঘরে ফেরার পালা। আপনি টলমল পায়ে গাড়িতে উঠে স্টিয়ারিং-এ বসলেন। আপনি নিজেকে বলছেন, আপনি মোটেই মাতাল হননি, একটু খুশিয়ালভাবে হাই হয়েছেন আর কি! যতই হোক, কয়েকটা ড্রিঙ্ক তো নিয়েছেন। আপনাকে পেড়ে ফেলতে আরও ‘অনেক’ কিছু লাগবে।

এর চেয়ে বড় ভুল আর কিছু হয় না।

অ্যালকোহল আপনাকে এমনভাবেই নেশাগ্রস্ত করে যার দরুণ আপনার গভীরতা সংক্রান্ত বোধশক্তি , বিচারবুদ্ধি এবং গুরুত্বপূর্ণ মোটরচালনাগত দক্ষতা , যা আপনাকে নিরাপদে চালাতে সাহায্য করে, তার হানি ঘটে। এটা মনে করা খুব সহজ যে আপনি স্বাভাবিকভাবেই চালাচ্ছেন, কিন্তু আপনি মোটেই স্বাভাবিকভাবে গাড়ি চালাচ্ছেন না।

এটা ভেবে দেখুন –

*সাম্প্রতিক এক সমীক্ষায় দেখা গেছে যে দিল্লি ও মুম্বাইয়ের মতো শহরে দেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি মদ্যপান করে গাড়ি চালানোর ঘটনা ঘটে। ঐ দুই শহরে পার্টিতে যাওয়া লোকের সবচেয়ে বেশি বসবাস।

*দেখা গেছে যে, মদ্যপান করে গাড়ি চালনার ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ গত পাঁচ বছরে ১৬৬ শতাংশ বেড়ে গেছে। তাই আপনার ওপরও ঐ অবস্থায় ব্রেথ অ্যানালাইজার সহ পুলিশ দলের মুখোমুখি হওয়ার সম্ভাবনা যথেষ্টই।

*পথ দুর্ঘটনার ক্ষেত্রে বিপর্যয়মূলক সংঘটনের অন্যতম প্রধান কারণই হল মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালনা। আর ভারতবর্ষে পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যুর ঘটনা বিশ্বে সবথেকে বেশি। ঘটনাচক্রে এই ঘটনা প্রতি বছরই বাড়ছে।